বিটকয়েন কি ? বিটকয়েন থেকে ইনকাম

বিটকয়েন কি ? বিটকয়েন থেকে ইনকাম

আমরা আজকে আপনাদের সাথে কথা বলতে চলেছি কিভাবে আপনি বিটকয়েন থেকে ইনকাম করবেন এবং আমরা যারা বিটকয়েন কি সে সম্পর্কে জানি না তাদের জন্য বিটকয়েন কি সে বিষয়ে আলোচনা করব।  অনলাইন জগতের সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় যে ক্রিপ্টোকারেন্সি টা রয়েছে সেটি হচ্ছে বিটকয়েন।

বিটকয়েন কি ? বিটকয়েন থেকে ইনকাম

বর্তমানে প্রায় হাজার খানেক ক্রিপ্টোকারেন্সি রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে দামি বিটকয়েন। এখন আমাদের অনেকের প্রশ্ন থাকতে পারে বিটকয়েন কোথায় আবিষ্কার হয়েছে আর বিটকয়েন কিভাবে ইনকাম করতে পারব বিটকয়েন ইনকাম করার কি কি উপায় রয়েছে আর আমরা ছাড়া বাংলাদেশের রয়েছে বাংলাদেশি কি বিটকয়েন বৈধ। 

নাকি বাংলাদেশে এখনো পর্যন্ত বিটকয়েন কে বৈধ ঘোষণা করা হয়নি। বাংলাদেশের বৈধ না হয় সে ক্ষেত্রে কি আমরা বিটকয়েন ইনকাম করতে পারব। আর আমরা যদি ইনকাম করে থাকি আমাদের কি কোন সমস্যা হবে এ সমস্ত প্রশ্ন নিয়ে আজকে আমাদের পুরো আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন সবকিছু বুঝে নিতে পারবেন।

বিটকয়েন কি

বিটকয়েন হচ্ছে একটি অনলাইন ক্রিপ্টোকারেন্সি। অনলাইনে ডলার এবং ইউরোপ পাশাপাশি বিটকয়েনের মাধ্যমে আপনি কেনাকাটা সম্পন্ন করতে পারবেন। যারা অনলাইনের মাধ্যমে ব্যবসা করে থাকে তারা তাদেরপেমেন্ট গেটওয় এর মধ্যে এখন বিটকয়েন এর মাধ্যমে পেমেন্ট করার অপশন চালু করেছে আপনি চাইলে খুব সহজেই বিটকয়েনের মাধ্যমে অনলাইনে কেনাকাটা সম্পন্ন করতে পারেন।

তবে অন্যান্য মুদ্রা ব্যবস্থা যেমন কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে পরিচালনার দায়িত্ব থাকে কিন্তু এই বিটকয়েনের কোন নির্দিষ্ট পরিচালক নেই কোন কেন্দ্রীয় ব্যাংক অথবা সরকারের নেই যে বিটকয়েন নিয়ন্ত্রণ করবে।

কিন্তু তারপরও বিটকয়েন অনেক নিরাপদে লেনদেন করা সম্ভব। ২০০৯ 2009 সালে সাতোসি নামক কোন এক ব্যক্তি অথবা কোন এক সফটওয়্যার ডেভলপার কোম্পানী সর্বপ্রথম এই ভার্চুয়াল মুদ্রা প্রচলন শুরু করে।

সাধারণত যে সকল মুদ্রা অনলাইনের মাধ্যমে পরিচালিত হয় অর্থাৎ ভার্চুয়াল জগতের লেনদেন হয়ে থাকে সে সকল মুদ্রা কে ক্রিপ্টোকারেন্সি বলা হয়।

বিশ্বসেরা এই ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েন লেনদেন করার জন্য কোন ব্যাংকিং সিস্টেম চালু নেই কারণ বিটকয়েন নিয়ন্ত্রণের জন্য কোন ব্যাংকিং ব্যবস্থা অথবা কোনো সরকার নেই যে তারা এই বিটকয়েন ক্রিপ্টোকারেন্সি কে কন্ট্রোল করবে। 

বিটকয়েন হয়ে থাকে দুইজন ইউজার এর মধ্যে একজনের ওয়ালেট থেকে অন্যজনের ওয়ালেটে খুব সহজে লেনদেন করা সম্ভব।

বিটকয়েন লেনদেন নিরাপত্তার জন্য ব্যবহার করা হয় ক্রিপ্টোগ্রাফি নামে একটি যন্ত্র যার ফলে খুব সহজে এবং নিরাপত্তার সাথে বিটকয়েন লেনদেন করা সম্ভব।

বিটকয়েন সবাই ইনকাম করতে পারে

অবশ্যই বিটকয়েন যে কেউ চাইলে ইনকাম করতে পারবে তবে একসময় ইনকাম করা অনেক সহজ উপায় ছিল কিন্তু যতদিন গড়াচ্ছে ততোই ইনকাম করা কঠিন হয়ে পড়ছে। কারণ অনলাইনে প্রতিনিয়ত বিটকয়েন ইনকাম করার মানুষ বৃদ্ধি পাচ্ছে যার ফলে বিটকয়েন ইনকাম করা খুবই কষ্টকর এবং ব্যয়বহুল হয়ে পড়েছে।

সাধারণত ইনকাম করতে গেলে হাই গ্রাফিক্স কার্ড প্রয়োজন হয় গ্রাফিক্স কার্ড গুলো অনেক দামি কিন্তু আমরা যারা সাধারন মানুষ রয়েছে তাদের পক্ষে গ্রাফিক্স কার্ডগুলো কিনে বিটকয়েন ইনকাম করা সম্ভব নয়। তার মানে কি আমরা ইনকাম করব না অবশ্যই আমরা ইনকাম করব তবে অন্যান্য উপায়।

আপনি চাইলে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করতে পারেন বর্তমানে অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে একাউন্ট করে বিটকয়েন ইনকাম করা যায় এবং বর্তমানে রয়েছে বাংলাদেশে এখন ইন্ডিয়াতে যে সফটওয়্যার গুলিতে আপনি কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন।

বিটকয়েন কিভাবে ইনকাম করে

সাধারণত বিটকয়েন ইনকাম করা হয় কম্পিউটারের উচ্চমাত্রার গ্রাফিক্স কার্ড ব্যবহার করে যারা বিটকয়েন ইনকাম করে তাদেরকে বলা হয় - মাইনার। সাধারণত যারা বিটকয়েন ইনকাম করে তারা রুম ভর্তি কম্পিউটার গ্রাফিক্স কার্ড নিয়ে বিটকয়েন ইনকাম করে থাকে কোটি কোটি টাকার গ্রাফিক্স কার্ড কিনতে হয়। 

কিন্তু আমরা যারা সাধারন মানুষ রয়েছে আমাদের পক্ষে এত টাকা দিয়ে গ্রাফিক্সকার্ড কিনা সম্ভব নয় এবং বিটকয়েন ইনকাম করা সম্ভব নয় তবে আমরা চাইলেই ছোটখাটো উপায় কিছু পরিমাণ বিটকয়েন ইনকাম করতে পারি সেগুলো আমরা উপর আলোচনা করেছি ভালোভাবে পড়লে বুঝতে পারবেন। 

বিটকয়েন কি বাংলাদেশে বৈধ

বিশ্বসেরা অনলাইন মুদ্রা বিটকয়েন এর উপর যখন এলন মাস্ক বিটকয়েন এর উপর বিনিয়োগ শুরু করে তখন থেকে বিটকয়েনের দাম অনেক বেড়ে গেছে এলন মাস্ক যখন বিটকয়েন এর উপর দেড়শ কোটি ডলার বিনিয়োগ করেন তখন বিটকয়েনের দাম ছিল এক বিটকয়েন সমান বাংলাদেশ টাকায় 40 লক্ষ্য টাকা কিন্তু বর্তমানে 1 বিটকয়েন = বাংলাদেশি টাকায় প্রায় 50 লক্ষ টাকার উপরে।

কিন্তু আমাদের অনেকের প্রশ্ন এত দামী একটি কারেন্সি কেন বাংলাদেশে অবৈধ বাংলাদেশ কেনাবেচা প্রায় আইনগত অপরাধ কিন্তু তারপরও বাংলাদেশে খুবই কম পরিসরে বিটকয়েন কেনাবেচা হচ্ছে।

তবে আশা করা যায় ভবিষ্যতে বাংলাদেশের বিটকয়েন বৈধ বলে ঘোষণা করা হবে। কারণ সম্ভাবনাময় একটি অনলাইন মুদ্রা বাংলাদেশের বৈধ থাকলে বাংলাদেশের অনেক উন্নয়ন হবে বলে আশা করা যায়।

বাংলাদেশী কোন মানুষ যখন ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসগুলোতে কিছু কয় বিক্রয় করতে যাই তখন অনেক সময় বিটকয়েনের লেনদেনের অভাবে তারা ভালোভাবে লেনদেন সম্পন্ন করতে পারেন।

আমাদের শেষ কথা

আমরা আজকে বিটকয়েন কি বিটকয়েন থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এবং বিটকয়েন কিভাবে মাইনিং করে এই বিষয়গুলো সম্পর্কে স্বল্প পরিসরে আলোচনা করেছি। আশা করি আপনি বিটকয়েন কি এবং এ থেকে কিভাবে আমরা বাংলাদেশীরা ইনকাম করতে পারি আমাদের যাদের বেশি টাকা-পয়সা নেই তারা কিভাবে বিটকয়েন ইনকাম করব এই বিষয়গুলো সম্পর্কে একটু হলেও অবগত হতে পেরেছেন কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদেরকে কমেন্টে জানাতে পারেন ইনশাআল্লাহউত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

Jahed Hasan

I'm Zahid Hasan Nazim, I'm a Digital Marketer and Content Writer - I love writing about technology so I want to share with you twitter facebook pinterest

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post